‘ক্রিকেটের খারাপ সময় কেটে যাবে’

‘ক্রিকেটের খারাপ সময় কেটে যাবে’ সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯ ০ comments

রঙিন ডেস্ক : বাংলাদেশ টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বলেছেন, দল একটি রূপান্তর প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। খারাপ সময় কেটে যাবে এবং ক্রিকেটাররা আগের মতোই ভালো খেলবেন।

নিউ ইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এওয়ার্ড প্রদানের লক্ষ্যে ইউনিসেফ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে সাকিব এই মন্তব্য করেন। জাতীয় দলের এই অলরাউন্ডার বর্তমানে ইউনিসেফের শুভেচ্ছা দূত হিসেবে কাজ করছেন।

জাতিসংঘ শিশু তহবিল (ইউনিসেফ) বাংলাদেশে যুবসমাজের দক্ষতা উন্নয়নে বিশাল সাফল্য অর্জনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘চ্যাম্পিয়ন অব স্কিল ডেভেলপমেন্ট ফর ইয়ুথ’ এওয়ার্ডে ভূষিত করেছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জাতিসংঘ প্লাজায় ইউনিসেফ নির্বাহী পরিচালক হেনরিয়েটা ফোর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে এওয়ার্ড তুলে দেন।

প্রধানমন্ত্রীকে পুরস্কার প্রদানের জন্য এবং অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার সুযোগ পাওয়ার জন্য ইউনিসেফের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন সাকিব আল হাসান। সেই সাথে আলোকিত বাংলাদেশ গড়ার জন্য তিনি সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।

অনুষ্ঠানে সাকিব বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি, বাংলাদেশ একটি ভালো টিম। এ ধরনের টিমের জন্য কখনো কখনো রূপান্তরের অবস্থা থাকে এবং এখন আমরা সেই অবস্থায় পর্যায় অতিক্রম করছি।’

সাকিব বলেন, বৃষ্টির কারণে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত টি-২০ ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়নি। ফাইনাল হলে পরিস্থিতি আমাদের টিমের অনুকূলে থাকত। এই অলরাউন্ডার বলেন, বাংলাদেশের সামনে দুটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ২০২০ সালে অস্ট্রেলিয়ার পর ২০২১ সালের বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে ভারতে। সাকিব এ দুটি বিশ্বকাপে ভালো করতে চান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গত এক দশকে বাংলাদেশের অসামান্য উন্নয়নের কথা উল্লেখ করে সাকিব বলেন, ‘আমরা সকলে বাংলাদেশের এই অগ্রযাত্রাকে এগিয়ে নেব।’

আরো পড়ুন:- শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অপেক্ষা বাড়লো পাকিস্তানের

এছাড়া নিজের ফেসবুক পেইজে সাকিব আল হাসান লিখেছেন, ‘আজকের যুবকরা আমাদের ভবিষ্যতের প্রত্যাশা, আজকের যুবকরাই আগামী দিনে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুকরণীয় নেতৃত্বে আমাদের দেশের যুবসম্প্রদায় বহু রকমের সুযোগ সুবিধা পাচ্ছেন। ক্ষমতায়ন ও উন্নয়নের জন্য তিনি আমাদের পথকে আলোকিত করতে দৃঢ়তার সাথে মশাল বহন করছেন। তিনি ইউনিসেফ কর্তৃক ‘চ্যাম্পিয়ন অব স্কিল ডেভোলপমেন্ট ফর ইয়ুথ’ পুরস্কার পেয়েছেন। ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূত হিসাবে তার এই পুরস্কার গ্রহণ অনুষ্ঠানে মঞ্চ ভাগাভাগি করতে পেরে আমি অত্যন্ত গর্বিত।’

আরপি/ এএইচ

No Comments so far

Jump into a conversation

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

<