যকৃতের উন্নতি ঘটাতে কিছু খাবার

যকৃতের উন্নতি ঘটাতে কিছু খাবার January 8, 2017 0 comments

রঙিন ডেস্ক : দেহের অপরিহার্য একটি অঙ্গ হলো লিভার বা যকৃত। শরীরের সবচেয়ে বড় গ্রন্থি এটি। একজন মানুষ লিভার বা যকৃত ছাড়া বেঁচে থাকতে পারেনা। রক্ত থেকে ক্ষতিকর পদার্থ বের করে দিতে সাহায্য করে যকৃত। আয়রন ও ভিটামিন সংরক্ষণ করে। যখন শরীরের সুগারের মাত্রা কমে যায় তখন সংরক্ষিত চিনিকে (সুগার) ব্যবহার উপযোগী করে তোলে। পিত্ত রস উৎপন্ন করে যা চর্বি হজমের জন্য প্রয়োজনীয়। শরীরের এতসব গুরুত্বপূর্ণ কাজের সাথে জড়িত বলেই যকৃতের রোগ হওয়ার প্রবণতাও বেশি থাকে। কিছু খাবার যকৃতের কাজের উন্নতিতে সাহায্য করে। যকৃতের কাজের উন্নতি ঘটাতে সাহায্য করে যে খাবারগুলো সেগুলোর বিষয়েই জানব আজ।

(১) টমেটো

টমেটোতেও প্রচুর পরিমাণে গ্লুটাথায়ন থাকে যা একটি চমৎকার ডিটক্সিফায়ার। এছাড়াও টমেটোতে লাইকোপিন থাকে বলে ব্রেস্ট ক্যান্সার, স্কিন ক্যান্সার ও ফুসফুসের ক্যান্সার থেকে সুরক্ষা দেয়।

(২) বীট ও গাজর

গাজর গ্লুটাথায়ন নামক প্রোটিনে সমৃদ্ধ যা যকৃতকে ডিটক্সিফাই হতে সাহায্য করে। বীট ও গাজর উভয়টিতেই উচ্চ মাত্রার উদ্ভিজ ফ্লাভোনয়েড এবং বিটা ক্যারোটিন থাকে। বীট ও গাজর খাওয়া যকৃতের কাজের উন্নতিতে সাহায্য করে।

(৩) বাঁধাকপি

বাঁধাকপির গ্লুকোসাইনোলেটস আইসোথায়োসায়ানেটস তৈরিতে সাহায্য করে। যা লিভারের টক্সিন বের হয়ে যেতে সাহায্য করে। বাঁধাকপিতে ক্লোরোফিল থাকে যা লিভারকে শক্তিশালী হতে সাহায্য করে।

(৪) পালংশাক
কাঁচা পালংশাক গ্লুটাথায়নের বড় উৎস যা যকৃতের এনজাইমকে উদ্দীপিত করে। সবুজ শাকে নির্দিষ্ট কিছু ক্লোরোফিল থাকে যা বিষাক্ত পদার্থ শোষণ করে নেয়ার ক্ষমতা রাখে।

(৫) সাইট্রাস ফল

লেবুতে উচ্চমাত্রার ভিটামিন সি থাকে যা যকৃতকে উদ্দীপিত হতে সাহায্য করে এবং বিষাক্ত পদার্থকে সংশ্লেষিত হতে সাহায্য করে।

(৬) আঙ্গুর

লিভার পরিষ্কার করার উপাদান গ্লুটাথায়নের আরেকটি উৎস হচ্ছে আঙ্গুর। এতে উচ্চমাত্রার ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যা লিভারের এনজাইমের উৎপাদনকে উদ্দীপিত করে এবং লিভারকে প্রাকৃতিকভাবে পরিষ্কার হওয়ার প্রক্রিয়াকে বৃদ্ধি করে।

(৭) আপেল

আপেলে উচ্চ মাত্রার পেকটিন ও অন্যান্য রাসায়নিক উপাদান ও থাকে, যা পরিপাক নালী হতে বিষাক্ত পদার্থ দূর করে পরিষ্কার হতে সাহায্য করে। লিভার পরিষ্কার হওয়ার প্রক্রিয়াকে সহজ হতে সাহায্য করে আপেল।

(৮) আখরোট

গ্লুটাথায়ন, ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড এবং এমাইনো এসিড আরজিনিন এর ভালো উৎস হচ্ছে আখরোট। এগুলো লিভার পরিষ্কার করতে সাহায্য করে, বিশেষ করে অ্যামোনিয়া দূর করতে।

(৯) হলুদ

যকৃতকে ডিটক্স হতে সাহায্য করে হলুদ। ডায়াটারি কার্সিনোজেনকে বের করে দেয়ার জন্য লিভারের এনজাইমকে সাহায্য করে হলুদ।

আরপি/ এএইচ

No Comments so far

Jump into a conversation

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

Your data will be safe!Your e-mail address will not be published. Also other data will not be shared with third person.