বিদায় ভাষণ : মুসলিমদের প্রতি বৈষম্য না করার আহ্বান ওবামার

বিদায় ভাষণ : মুসলিমদের প্রতি বৈষম্য না করার আহ্বান ওবামার January 11, 2017 0 comments

রঙিন ডেস্ক : বিদায়ী ভাষণে মুসলিমদের প্রতি কোনও প্রকার বৈষম্য না করার আহ্বান জানিয়েছেন বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। যুক্তরাষ্ট্র সময় মঙ্গলবার রাতে আর বাংলাদেশ সময় বুধবার সকালে যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোতে দেয়া ভাষণে তিনি এ আহ্বান জানান।

এসময় তিনি নিজের আট বছর শাসনামলের সফলতার চিত্র তুলে ধরে জলবায়ু পরিবর্তন, অর্থনৈতিক পরিস্থিতি পুনরুদ্ধার, কিউবার সঙ্গে সম্পর্ক পুনঃস্থাপন, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের বিষয়ে কথা বলেন।

যুক্তরাষ্ট্র আগের চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালি দাবি করে ওবামা বলেন, এবার ধন্যবাদ বলার পালা।

আগামীর ইঙ্গিত করে মার্কিন এ প্রেসিডেন্ট বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন ইস্যু প্রত্যাখ্যান করা আগামী প্রজন্মের জন্য প্রতারণা হবে।

তিনি বলেন, বর্ণবাদ যুক্তরাষ্ট্রের জন্য এখনও বড় সমস্যা। বর্ণবাদের বিরুদ্ধে সবার আরও অনেক কিছু করার আছে। তবে বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠি (অভিবাসী) যুক্তরাষ্ট্রকে সমৃদ্ধ করেছে বলেও উল্লেখ করেন ওবামা।

এসময় নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে মসৃণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করা হবে বলেও জানান বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ওবামা।
টানা দুইবার নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালনের পর আগামী ২০ জানুয়ারি নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন বারাক ওবামা। আট বছর প্রেসিডেন্ট হিসেবে হোয়াইট হাউজে দায়িত্ব পালনের পর আজ জাতির উদ্দেশে বিদায়ী ভাষণ দেন তিনি। ক্ষমতা হস্তান্তরের আগে এটাই তার শেষ ভাষণ।

প্রচণ্ড শীতের মধ্যে বিদায়ী প্রেসিডেন্টের এ ভাষণ শুনতে কয়েক হাজার মানুষ উপস্থিত হন। ওবামার একনিষ্ঠ ভক্তরা আগে থেকে শীত উপেক্ষা করেও টিকিট সংগ্রহ করেছিলেন।

শিকাগো শহর থেকেই ওবামা ২০০৮ এবং ২০১২ সালের নির্বাচনে জয় ঘোষণা করেছিলেন। আজ সেখানেই তিনি বিদায়ী দিয়েছেন।
ভাষণ দেয়ার সময় ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা, ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং তার স্ত্রী জিল বাইডেনও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

ভাষণ শেষে ওবামা পরিবার ভক্তদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। অনেক ভক্তকে তাদের সঙ্গে সেলফি তুলতেও দেখা গেছে। সূত্র : কালেরকণ্ঠ।

আরপি/ এএইচ

No Comments so far

Jump into a conversation

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

Your data will be safe!Your e-mail address will not be published. Also other data will not be shared with third person.