প্রথমদিনেই বক্সঅফিসে ‘নীরজা’র দাপট

প্রথমদিনেই বক্সঅফিসে ‘নীরজা’র দাপট 0 comments

রঙিন ডেস্ক: ঘটনাটা ১৯৮৬ সালের ৫ সেপ্টেম্বর। পাকিস্তানের করাচিতে একটি বিমান হাইজ্যাক হয়। এতে যাত্রী ছিলেন ৩৫৯ জন। বিমানবালাদের মধ্যে ছিলেন ২৩ বছর বয়সী অকুতোভয় নীরজা ব্যানট। যিনি ৩৫৯টি প্রাণ বাঁচিয়ে মারা গিয়েছিলেন। সত্যিকারের এই নীরজার কাহিনী নিয়েই বলিউডে নির্মিত হয়েছে ‘নীরজা’ শিরোনামের ছবি।

গতকাল ৭০০-৮০০ সিনেমা হলে একযোগে মুক্তি পেয়েছে নীরজা। আর প্রথম দিনেই ছবিটি শুধু ভারতের বক্স অফিসেই আয় করেছে ৪ কোটি ৭০ লাখ রুপি।

শনিবার বাণিজ্য বিশ্লেষক তারান আদার্শ এক টুইট বার্তায় জানিয়েছেন সিনেমাটির প্রথম দিনের আয়ের অঙ্ক। তিনি লেখেন- “নীরজা: শুক্র ৪.৭০ কোটি; শনিবার এবং রবিবার ছবিটির এই আয়কে টেক্কা দেবে বলেই ধারণা করা হবে।”

ছবিটির মূল বাজেট ছিল ১৮ কোটি রুপি। আর প্রডাকশন খরচ মিটিয়ে মোট ব্যয় ২৫ কোটি রুপি। তারমধ্যে প্রথম দিনেই ৪ কোটি ৭০ লাখ রুপি আয় করায় রীতিমত ব্লকবাস্টার হওয়ার স্বপ্নে বিভোর ‘নীরজা’র নির্মাতা রাম মাধবান।

স্ক্রিন সর্টটি বাণিজ্য বিশ্লেষক তারান আদার্শের টুইটার থেকে নেয়া

স্ক্রিন সর্টটি বাণিজ্য বিশ্লেষক তারান আদার্শের টুইটার থেকে নেয়া

বেশ ক’দিন ধরেই আলোচনায় ছিল রাম মাধবানির ছবি ‘নীরজা’। প্রচার প্রচারণা আর ছবির বিষয়বস্তুও আকর্ষিত ছিল ভারতীয় দর্শকের কাছে। কারণ ছবিতে পাকিস্তানি আততায়ীদের এক বিমান ছিনতাইয়ের বাস্তব কাহিনী ফুটে উঠেছে। সেই আগ্রহে আরো আকর্ষণ যোগ করেছে সিনেমা মুক্তির আগে আগে পাকিস্তান মন্ত্রণালয় তাদের দেশে ছবিটি নিষিদ্ধ করে দেয়ায়। এইসব বিবেচনায় মোটামুটি জানায় ছিল যে, নীরজা ভালোই প্রভাব দেখাবে বক্স অফিসে।

নীরজা কোনো কাল্পনিক সিনেমার কাহিনী নয়। সত্যি সত্যিই ‘প্যান এএম’ বিমানের বিমানসেবিকা ছিলেন ভারতীয় নীরজা। ১৯৮৬ সালে পাকিস্তানে বিমানটি হাইজ্যাক করা হয়েছিল। সেদিন ৩৫৯ জনের প্রাণ বাঁচিয়েছিলেন নীরজা। আর সেই কাহিনী অবলম্বন করেই নীরজা ব্যানটের উপর নির্মিত ছবি ‘নীরজা’।

বিমান যাত্রীদের প্রাণ বাঁচানোর জন্য ভারত সরকার নীরজাকে মরনোত্তর ‘অশোক চক্র’ পুরস্কার দেন। ১৯ ফেব্রুয়ারি মুক্তির প্রতীক্ষায় থাকা নীরজা ছবিটি পরিচালনা করেছেন রাম মাধবানি। ছবিতে নীরজার চরিত্রে সোনম কাপুর ছাড়াও আছেন বিখ্যাত অভিনেত্রী শাবানা আজমি।

এসএল/এএইচ

No Comments so far

Jump into a conversation

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

Your data will be safe!Your e-mail address will not be published. Also other data will not be shared with third person.