নাট্যাভিনেতা কল্যাণকে আটক : রিমান্ডের আবেদন

নাট্যাভিনেতা কল্যাণকে  আটক : রিমান্ডের আবেদন January 11, 2017 0 comments

রঙিন ডেস্ক : প্রথম আলোর প্রধান আলোকচিত্রী জিয়া ইসলামকে গাড়িচাপা দেয়ার মামলায় অভিনেতা কল্যাণ কোরাইয়াকে ৩ দিনের রিমান্ড আবেদন করেছে পুলিশ।

বুধবার ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে এই রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য এই আবেদন করা হয়।

ঢাকা মহানগর হাকিম মাজহারুল হকের আদালতে বুধবার বিকেল তিনটায় এই আবেদনের শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

প্রথম আলোর প্রধান আলোকচিত্রী জিয়া ইসলামকে গাড়িচাপা দেয়ার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে মঙ্গলবার দুপুরে তাকে আটক করা হয়েছে বলে কলাবাগান থানা পুলিশ জানিয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে তাকে থানায় ডেকে নেয়া হয়। এরপর জিয়ার দুর্ঘটনার ব্যাপারে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে আর ছাড়া হয়নি। পরে তার বিরুদ্ধে মামলা দাযের করার পর তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

থানা পুলিশ জানিয়েছে, প্রথম আলোর আলোকচিত্রী জিয়া ইসলামকে গাড়িচাপা দেয়ার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে কল্যাণ কোরাইয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

কলাবাগান থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইয়াসিন আরাফাত বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় নাট্যকর্মী কল্যাণ কোরাইয়ার প্রাইভেটকারই জিয়ার মোটরসাইকেলকে চাপা দিয়েছিল বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে পুলিশের রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) শেখ মারুফ হাসান বলেন, মামলা করবে বলে শুনেছি। একজন আটকও রয়েছে। ঘটনায় কারো সংশ্লিষ্টতা থাকলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত সোমবার রাতে রাজধানীর পান্থপথে প্রথম আলোর আলোকচিত্রী জিয়া ইসলামের মোটরসাইকেলকে একটি প্রাইভেটকার ধাক্কা দিয়ে চলে যায়। মোটরসাইকেল থেকে পড়ে গিয়ে মারাত্মক আহত হন জিয়া। উপস্থিত লোকজন দ্রুত উদ্ধার করে জিয়াকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি করেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য জিয়া ইসলামকে মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর এ্যাপোলো হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

ঢামেক হাসপাতালের অ্যানেসথেশিয়া বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক ডা. মোজাফফর আহমেদ জানান, জিয়া ইসলাম মাথায় বড় ধরনের আঘাত পেয়েছেন। ফলে তার মস্তিষ্কে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে।
এএইচ

No Comments so far

Jump into a conversation

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

Your data will be safe!Your e-mail address will not be published. Also other data will not be shared with third person.