গ্র্যামীতে সর্বাধিক মনোনীত বিয়ন্সে

গ্র্যামীতে সর্বাধিক মনোনীত বিয়ন্সে 0 comments

রঙিন ডেস্ক : সম্প্রতি প্রকাশ হলো বিশ্বসংগীতের সর্বোচ্চ পুরস্কার গ্র্যামী অ্যাওয়ার্ডসের ৫৯তম আসরের মনোনয়ন তালিকা। এ তালিকার সামনের সারির লড়াইয়ে আছেন পপ, রিদমঅ্যান্ডব্লুজ ও হিপ-হপ শিল্পীরা।

এর মধ্যে সর্বাধিক নয়টি বিভাগে মনোনীত হয়েছেন মার্কিন রিদমঅ্যান্ডব্লুজ গায়িকা বিয়ন্সে। এ তালিকার প্রথম সারির তিন বিভাগ- অ্যালবাম, সং ও রেকর্ড অব দ্য ইয়ার’এর জন্য মনোনীত হয়েছেন তিনি। নিজের জনপ্রিয় গান ‘ফরমেশন’ ও ভিজ্যুয়াল অ্যালবাম ‘লেমোনেড’ মনোনয়নগুলো এনে দিয়েছে ৩৫ বছর বয়সী এই তারকাকে। অ্যালবামটিতে রয়েছে বর্ণ, নারী-জাগরণ ও ক্ষমতায়ন বিষয়ক গান।

গ্র্যামীর ইতিহাসে এ পর্যন্ত ৬২ বার সবচেয়ে বেশি মনোনীত হলেন গায়িকা বিয়ন্সে। এছাড়া এবারের আসরে মনোনীত সব বিভাগে পুরস্কার জিতলে গায়িকা হিসেবে সর্বাধিক গ্র্যামী জয়ের রেকর্ড গড়বেন তিনি।
এর আগে ২০টি গ্র্যামী পুরস্কার পেয়েছেন, তবে কখনও অ্যালবাম অব দ্য ইয়ার সম্মান জেতা হয়নি তার। যদিও দুইবার এ বিভাগে মনোনয়ন পেয়েছেন তিনি।

উল্লিখিত তিনটি বিভাগে বিয়ন্সে ছাড়া মনোনীত হয়েছেন একমাত্র অ্যাডেল। ২০১২ সালে ‘টোয়েন্টি ওয়ান’ অ্যালবামের সুবাদে ছয়টি গ্র্যামী পুরস্কার জয় করেন ব্রিটিশ এই তারকা। ফলে বলা যায়, তিনিই এবার বিয়ন্সের শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী। ‘টোয়েন্টি ফাইভ’ অ্যালবামের সুবাদে অ্যাডেল মনোনয়ন পেয়েছেন পাঁচটি। এর দুটি এসেছে তার বিখ্যাত গান ‘হ্যালো’র সুবাদে। অ্যালবাম অব দ্য ইয়ার বিভাগে তিনি জিতলে গ্র্যামীর ইতিহাসে দ্বিতীয় গায়িকা হিসেবে দুইবার পুরস্কারটি জয়ের রেকর্ড গড়বেন। এটি এখন আছে টেলর সুইফটের দখলে।

অ্যালবাম অব দ্য ইয়ার বিভাগে আরও মনোনীত হয়েছে জাস্টিন বিবার।

আটটি করে মনোনয়ন পেয়েছেন কানাডিয়ান হিপ-হপ তারকা ড্রেক, বারবাডোজের গায়িকা রিয়ান্না ও মার্কিন র্যা পার কানইয়ে ওয়েস্ট।

গ্র্যামীর মূল বিভাগগুলোর মনোনয়ন তালিকা
অ্যালবাম অব দ্য ইয়ার: অ্যাডেল (টোয়েন্টি ফাইভ), বিয়ন্সে (লেমোনেড), জাস্টিন বিবার (পারপাস), ড্রেক (ভিউজ), স্টারগিল সিম্পসন (অ্যা সেইলরস গাইড টু আর্থ)

রেকর্ড অব দ্য ইয়ার: অ্যাডেল (হ্যালো), বিয়ন্সে (ফরমেশন), লুকাস গ্রাহাম (সেভেন ইয়ারস), রিয়ান্না ফিচারিং ড্রেক (ওয়ার্ক), স্ট্রেসড আউট (টোয়েন্টি ওয়ান পাইলটস)

সং অব দ্য ইয়ার: অ্যাডেল (হ্যালো), বিয়ন্সে (ফরমেশন), জাস্টিন বিবার (লাভ ইউরসেলফ), লুকাস গ্রাহাম (সেভেন ইয়ারস), মাইক পসনার (আই টু অ্যা পিল ইন ইবিজা)

বেস্ট নিউ আর্টিস্ট: কেলসি ব্যালারিনি, দ্য চেইনস্মোকার্স, চান্স দ্য র্যা পার, ম্যারেন মরিস, অ্যান্ডারসন পাক
বেস্ট অল্টারনেটিভ অ্যালবাম: ডেভিড বোওয়ি (ব্ল্যাকস্টার), পিজে হার্ভে (দ্য হোপ সিক্স ডেমোলিশন প্রজেক্ট), বন আইভার (টোয়েন্টি টু, অ্যা মিলিয়ন), ইজি পপ (পোস্ট পপ ডিপ্রেশন), রেডিওহেড (অ্যা মুন শেপড পুল)

বেস্ট পপ অ্যালবাম: অ্যাডেল (টোয়েন্টি ফাইভ), জাস্টিন বিবার (পারপাস), আরিয়ানা গ্র্যান্ড (ডেঞ্জারাস ওম্যান), ডেমি লোভেটো (কনফিডেন্ট), সিয়া (দিস ইজ অ্যাক্টিং)।
বেস্ট র্যা প অ্যালবাম: চান্স দ্য র্যা পার (কালারিং বুক), ডি লা সৌল (অ্যান্ড দ্য অ্যাননিমাস নোবডি), ডিজে খালেদ (মেজর কি), ড্রেক (ভিউজ), স্কুলবয় কিউ (ব্ল্যাঙ্ক ফেস এলপি), কানইয়ে ওয়েস্ট (দ্য লাইফ অব পাবলো)।

আরপি/ এএইচ

No Comments so far

Jump into a conversation

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

Your data will be safe!Your e-mail address will not be published. Also other data will not be shared with third person.