গ্রন্থমেলায় চলছে শিশুপ্রহরের আমেজ

গ্রন্থমেলায় চলছে শিশুপ্রহরের আমেজ February 20, 2016 0 comments

রঙিন ডেস্ক: শেষ শিশুপ্রহর ২৬ ফেব্রুয়ারি। কিন্তু তাতে কী? ছুটির সকালে গ্রন্থমেলায় চলছে অগনিত শিশুপ্রহরের আমেজ।  আজ শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) গ্রন্থমেলার ২০তম দিন। সকাল সকাল শিশুদের উপস্থিতি বেশ উল্লেখযোগ্য। সপরিবারে এসেছেন বেশিরভাগ মানুষ।

স্কুলের নীল-সাদা ইউনিফর্ম পরে সকাল সকাল ছুটে এসেছে অগনিত শিশু। বাংলা একাডেমি অংশের স্টলগুলো ঘুরে ঘুরে তারা কিনছে রূপকথার বই, ছোটবেলার তথ্য ও ছবির অ্যালবামের মতো বইগুলো।

একাডেমি অংশে দায়িত্বে থাকা উপপরিদর্শক (এসআই) মাহফুজ শিশুপ্রহর প্রসঙ্গে সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘শিশুপ্রহর না থাকলেও ছুটির দিনের সকালে শিশুরা আসে। তাই আমরা এ বিষয়ে বেশি সজাগ থাকি। বাচ্চারা যেন হারিয়ে না যায়, ভিড়ে ব্যথা না পায়- এসব বিষয়ে খেয়াল রাখতে হয়। এছাড়া স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা আসেন। তাদের বিষয়ে নির্দেশনা রয়েছে।’

এ ছাড়াও (এসআই) মাহফুজ আরো বলেন, ‘টানা তিনদিনের ছুটিতে অনেকেই ঢাকার বাইরে বেড়াতে গেছেন। কেউ নিজেদের বাড়িতে, কেউ আবার কোনো দর্শনীয় স্থান দেখতে। তবু গতকাল (শুক্রবার) খুব ভিড় হয়েছে। ছুটির দিনের ভিড়ের জন্য আমাদের প্রস্তুতি ছিল বলে সমস্যা হয়নি। যত ভিড়ই হোক, সিকিউরিটি চেকিং অতিক্রম করতে হয়েছে আগতদের প্রত্যেককে।’

তথ্যকেন্দ্রে প্রকাশকরা নতুন বইয়ের তথ্য জমা দিচ্ছেন। স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের প্রতিষ্ঠানের পোশাক দেখেই চেনা যাচ্ছে।

বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে ‘বাংলাদেশে সামাজিক ও সাংস্কৃতিক জাগরণ: সমস্যা ও সম্ভাবনা’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন মফিদুল হক।

আলোচনায় অংশ নেবেন বদিউর রহমান, গোলাম কুদ্দুছ ও শুভাশিস সিনহা। সভাপতিত্ব করবেন কামাল লোহানী। এছাড়া প্রতিদিনকার মতো সন্ধ্যায় রয়েছে নাচ-গান-কবিতা আবৃত্তিসহ নানা আয়োজন। প্রতিদিনের মতোই না বলে-কয়ে উপস্থিত হয়ে যেতে পারেন কোনো বিশেষ ব্যক্তিত্বও।

বেলা ১১টায় শুরু হওয়া এদিনের মেলা চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত। সংলগ্ন রাস্তাটি ১১টার আগেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

এমএস/এএইচ

No Comments so far

Jump into a conversation

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

Your data will be safe!Your e-mail address will not be published. Also other data will not be shared with third person.