১৮ বছর পর…

১৮ বছর পর… নভেম্বর ৩০, ২০১৯ ০ comments
asaduzzaman

ছবি- সংগৃহীত

রঙিন ডেস্ক: আসাদুজ্জামান নূর; একজন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও রাজনীতিবিদ। ১৯৭২ সালে মঞ্চদল ‘নাগরিক’ নাট্য সম্প্রদায়ের সাথে তার অভিনয় জীবন শুরু হয়। এই নাট্যদলের ১৫টি নাটকে তিনি ৬০০ বারের বেশি অভিনয় করেছেন। এই দলের দু’টি নাটকের নির্দেশনা প্রদান করেছেন, যার মধ্যে ‘দেওয়ান গাজীর কিসসা’ বহুল জনপ্রিয়তা লাভ করে।

এদিকে রাজনীতি ও বিভিন্ন ব্যস্ততায়ে বেশ কয়েকটি বছর কেটে গেছে। ইচ্ছা থাকা সত্যেও সময় হয়ে ওঠেনি অভিনয়কে চলিয়ে নেয়ার। তবে ১৮ বছর পর আবারো দর্শকদের সামনে সরাসরি অভিনয় নিয়ে মঞ্চে ফিরেছেন সাবেক এই মন্ত্রী। শুক্রবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালায় উদ্বোধন মঞ্চায়ন হয় আসাদুজ্জামন নূর অভিনিত ‘কালো জলের কাব্য’। এই নাটকের প্রধান চরিত্র ‘ভাঙারি’র ভূমিকায় অভিনয় করেছেন তিনি।

উইলিয়াম শেকসপিয়রের ‘মার্চেন্ট অব ভেনিস’ থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে নাটকটির রচনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন পান্থ শাহরিয়ার। রচনা ও নির্দেশনার পাশাপাশি এখানে অভিনয়ও করছেন পান্থ শাহরিয়ার। এই নাটকের প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন আসাদুজ্জামন নূর। অপি করিম ও আসাদুজ্জামন নূর ছাড়াও এতে অভিনয় করছেন রিজভী, ফারুকী, শহীদ প্রমুখ।

ছবি- সংগৃহীত

ছবি- সংগৃহীত

আরো পড়ুন: নববধূ রূপে শাওন!

নাটক ও অন্যান্য প্রসঙ্গে আসাদুজ্জামন নূর বলেন, ‘দীর্ঘদিন পর নতুন নাটক নিয়ে মঞ্চে ফিরছি। বেশ ভালো লাগছে। তবে কিছুটা স্নায়ুচাপ রয়েছে। কারণ, মঞ্চে সর্বশেষ নতুন নাটকে অভিনয় করেছিলাম ২০০১ সালে, সারা যাকেরের নির্দেশনায় ‘মুখোশ’ নাটকে। এটি একটি বিদেশি নাটক থেকে রূপান্তর করেছিলেন সৈয়দ শামসুল হক। গত ১৮ বছরে নাগরিকের বেশ কয়েকটি পুরোনো নাটকের শোতে অংশ নিয়েছিলাম। কিন্তু নতুন নাটকে অভিনয় করা হয়নি।’

‘কালো জলের কাব্য’ নাটকে নিজের চরিত্র নিয়ে তিনি বলেন, ‘উইলিয়াম শেকসপিয়রের ‘মার্চেন্ট অব ভেনিস’র মূল চরিত্র শাইলক। এই চরিত্রেই আমি অভিনয় করেছি। যেহেতু নাটকটি মার্চেন্ট অব ভেনিস থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে লেখা হয়েছে। ফলে পুরোপুরি আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে নির্দেশক তুলে ধরেছেন। ফলে দর্শক প্রথমেই মার্চেন্ট অব ভেনিসের সঙ্গে নাটকটির যোগসূত্র খুঁজে পাবেন না। ধীরে ধীরে যখন লোভ বা প্রতিহিংসার জায়গাগুলো পাওয়া যাবে, তখন উপলব্ধি হবে।’

এ সময়ে এসে এমন চরিত্রে অভিনয় করা নিয়ে তিনি বলেন, ‘বয়স বাড়ে, কিন্তু একরকম উদ্যম তো থাকেই। আর সেই উদ্যমের কারণেই কিন্তু এই নাটকে অভিনয় করতে রাজি হয়েছি। আমি চেষ্টা করেছি। এখন বাকিটা নির্ভর করছে দর্শকের ওপর।’

এসএল/এএইচ

No Comments so far

Jump into a conversation

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

<