সপ্তাশ্চর্য ক্রাইস্ট দ্য রেডীমার

সপ্তাশ্চর্য ক্রাইস্ট দ্য রেডীমার May 16, 2017 0 comments

সরদার জাহিদুল কবীর: বিশ্বের সপ্তাশ্চর্য ক্রাইস্ট দ্য রেডীমার হলো যিশুখ্রিস্টের একটি বৃহৎ মূর্তি। ব্রাজিলের রিও-ডি-জেনেইরো শহরে অবস্থিত পৃথিবীর সর্ববৃহৎ আর্ট ডেকো এবং যিশুখ্রিস্টের মূর্তিসমূহের মধ্যে বিশ্বে ৫ম।c3

২৬ ফুট উচু বেদির ওপর ৯৮ ফুট উচু মূর্তিটির প্রসারিত দু’হাতের মাঝের দূরত্ব ৯২ ফুট। ওজন ৬৩৫ টন। ব্রাজিলের তিজুকা জাতীয় উদ্যানে ২ হাজার ৩শ ফুট উচ্চতার করকোভাদো পর্বতের চূড়ায় এটি নির্মাণ করা হয়। পর্বতের পাদদেশ থেকে সর্পিলাকার পথ পৌঁছে দেয়া হয় শীর্ষদেশে। তৈরি করা হয় সিঁড়ি। কংক্রিট এবং শ্বেত স্ফটিক শিলা দিয়ে ১৯২৬ থেকে ৩১ সাল পর্যন্তু চলে এটির নির্মাণ কাজ। প্রতিকূল আবহাওয়ায় ঔজ্জ্বল্য অটুট রাখতে এর বাইরের স্তরে ব্যবহার করা হয় সোপস্টন। প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক পর্যটকের আগমন ঘটে এখানে।c4

২০০৭ সাল থেকে আয়োজিত বিশ্ব ভোটে পৃথিবীর নতুন সপ্তাশ্চর্যের মধ্যে তৃতীয় স্থান অধিকার করে এটি। ১৮৫০-এর দশকে ব্রাজিলের ক্যাথলিক যাজক পেদ্রো মারিয়া বস একটি বৃহৎ ধর্মীয় মনুমেন্ট নির্মাণের জন্য প্রিন্সেস ইসাবেল-এর নিকট অর্থ বরাদ্দের আবেদন জানান। কিন্তু তিনি এটি বাতিল করে দেন। তখন ব্রাজিল পর্তুগালের শাসনাধীন ছিল।c5

১৮৮৯ সালে চার্চ এবং রাষ্ট্র পৃথকীকরণ আইনসহ ব্রাজিলে প্রজাতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯২০ সালে পর্বতের ওপর একটি ল্যান্ডমার্ক মূর্তি নির্মাণ করেন রিও ক্যাথলিকরা। এরপর ধর্মীয় সংগঠকরা এটিকে ধর্মীয় মনুমেন্ট হিসেবে নির্মাণের জন্য জনগণের অনুদান এবং স্বাক্ষর গ্রহণ সপ্তাহ’র আয়োজন করে। তখন ব্রাজিলিয় ক্যাথলিকদের নিকট থেকে বেশি সাড়া মেলে।c2

এরপর নির্মিত হয় ক্রাইস্ট দ্য রেডীমার, ক্রসচিহ্ন সম্বলিত যিশুখ্রিস্টের প্রসারিত দু’হাতের আলোক সজ্জিত স্থাপত্যকলার মূতি। মূর্তির এ প্রসারিত দু’হাত শান্তির প্রতীক।c6

রাতের আঁধারে দেখলে মনে হবে দূর আকাশে দাঁড়িয়ে যিশু দু’হাত প্রসারিত করে পৃথিবীর মানুষকে শান্তির পথে আসার আহবান জানাচ্ছেন। এমনকি শহরের যেকোন প্রান্ত থেকে দেখা যায় এটি। এটি ব্রাজিলিয়ানদের খ্রিশ্চিয়ানিটির প্রতীক। বর্তমানে এটি ব্রাজিল এবং রিও-ডি-জেনেইরোর আইকন হিসেবে সারাবিশ্বে পরিচিতি পেয়েছে।

No Comments so far

Jump into a conversation

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

Your data will be safe!Your e-mail address will not be published. Also other data will not be shared with third person.