সন্তানকে শাসন করবেন যেভাবে…

সন্তানকে শাসন করবেন যেভাবে… মার্চ ৯, ২০২০ ০ comments
child

ছবি- সংগৃহীত

রঙিন ডেস্ক: জন্মের পর থেকেই আপনার সন্তানের সব দায়-দায়িত্ব আপনার। তার জীবনের সব কিছুর চাবিকাঠিই আপনার হাতে। আপনার সব ইচ্ছা, ভালোবাসা, স্বপ্নও তাকে ঘিরেই। মাতৃত্ব, পিতৃত্ব যে একটা বড় প্রাপ্তি তা কোনো মা-বাবাই অস্বীকার করতে পারেননা। তবে মাঝে মধ্যেই সন্তানের দশ্যিপনায় বিরক্ত কিংবা ক্ষুদ্ধ হন আর তিক্ত মনোভাবও পোষণ করেন। আর তার ফলে সমস্যা সমাধানের বদলে বেড়ে যায়। তাই হাল না ছেড়ে জেনে নিন কিভাবে সন্তানকে শাসন করবেন।

মেজাজ হারিয়ে ফেলবেন না: প্রয়োজনে কঠর আপনাকে হতেই হবে। তা বলে বেশি চিৎকার কিংবা মারধর করবেন না। তাতে হিতে বিপরীত হতে পারে। আপনার বদমেজাজ আপনার সন্তানের ভয়ের কারণ হতেই পারে। কিন্তু এর ফলে আপনার থেকে দূরে সরে যেতে পারে আপনার সন্তান। তাই শিক্ষা দিতে গিয়ে মেজাজ কখনো হারাবেন না।

যুক্তিই হোক হাতিয়ার: যুগ বদলেছে। গুরুজনদের কথাই শেষ কথা, এই দিন চলে গেছে। সব না-এর পেছনে এখন বাচ্চারা কারণ খোঁজে। তাই কেন না করছেন সেটা তাকে বুঝিয়ে বলুন। তাহলে দেখবেন নিজের যুক্তি খাঁটিয়ে নাগুলো শুনবে।

আরো পড়ুন: ত্বক সজীব রাখার ৫ উপায়

সন্তানের দৃষ্টিভঙ্গিকে গুরুত্ব দিন: ছোটরা সবসময় যে ভুল বলে এরম ভাবার কোনো কারণ নেই। কিছু কিছু সময় বাচ্চারাও ঠিক বলে। তাই মন দিয়ে শুনুন ওদের কথা। তাতে সন্তানের আত্মসম্মানও বাড়বে, আর আপনার প্রতি সম্মানও।

প্রয়োজনমতো কঠর হন: সবসময় মিষ্টি কথায় কাজ হয় না। তাই কখনো কখনো কঠরও হতে হয়। তাই কঠর হওয়া মানেই মারধর নয়। আপনার কথা বা চোখ রাঙ্গানোর মধ্যে দিয়ে বুঝিয়ে দিন যে আপনি কোনোরকম অসভ্যতা বরদস্ত করবেন না। ওর আচরণ যে আপনাকে দুঃখ দিচ্ছে তাও জানিয়ে দিন। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বাচ্চারা মা-বাবাকে দুঃখ দিতে চায় না।

গিফ্ট দিন: সন্তান ভালো কিছু করলে ঘুরতে নিয়ে যান, প্রিয় খাবার খাওয়ান। প্রশংসা করুন। তাতে সন্তান আপনাকে বুঝবে, এবং আপনার উপর নির্ভরতাও বাড়বে। সূত্র: জি-নিউজ

এসএল/এএইচ

No Comments so far

Jump into a conversation

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

<