মেয়েদের যে গুণগুলোর জন্য কুর্ণিশ জানানো উচিৎ

মেয়েদের যে গুণগুলোর জন্য কুর্ণিশ জানানো উচিৎ ডিসেম্বর ৬, ২০১৮ ০ comments

রঙিন ডেস্ক : সমাজে মেয়েদেরকে অনেক কিছুই সহ্য করতে হয়। অনেক ক্ষেত্রেই মেয়েদেরকে ছোট করে দেখা হয়। অনেক সময়ই মেয়েদের প্রসঙ্গ উঠলেই কেমন তাঁদের একটা বাঁধাধরা গতে ফেলে দেওয়ার চেষ্টা করেন কেউ কেউ। আর সেখানেই ভুলটা হয়। মেয়েদের কোনো প্রচলিত ছকে না ফেলে বরং আসুন দেখে নেওয়া যাক, কোন কোন গুণের জন্য তাঁদের কুর্নিশ জানানো উচিত!

চিন্তাশীলতা
ভালোবাসা, যত্ন করা, বুঝদার আচরণ করা, এ সবই চিন্তাশীলতার অঙ্গ। মেয়েরা হাতে সময় থাকতেই অনেক কিছু আগে থেকে গুছিয়ে পরিকল্পনা করে রাখেন, যাতে ভবিষ্যতে কোনো বড়ো ধরনের গন্ডগোল না হয়। স্বামী বা প্রেমিকের যাবতীয় প্রয়োজন আর খুঁটিনাটি মাথায় রাখেন তাঁরা। আর বন্ধু হিসেবেও তাঁরা সবসময় অতিরিক্ত যত্নশীল হন।

সমানুভূতি
সহানুভূতি নয়, সমানুভূতি। সহানুভূতির মধ্যে কোথাও একটু করুণার রং মিশে থাকে, কিন্তু সমানুভূতি এমনই যা আপনাকে মনের কথা খুলে বলতে উৎসাহ দেয়। আপনার সমস্যা বা কষ্টটা উনি আপনার জায়গা থেকে বুঝতে চেষ্টা করেন এবং পাশাপাশি চেষ্টা করেন আপনার সমস্যার সমাধান জোগানোর। তাই পরেরবার উনি যদি কখনও নিজের কোনো সমস্যার কথা আপনাকে জানান, ওঁর কথাও মন দিয়ে শুনুন। পাশে থাকুন।

ধৈর্য
রোজকার ছোটখাটো ঝামেলা সামলাতে ধৈর্যর ভূমিকা বিরাট। আপনি যুক্তি দিতেই পারেন, সব মেয়ে সমান ধৈর্যশীল হন না। কিন্তু এমনও তো হতে পারে, সেই পরিস্থিতিই কোনোদিন তৈরি হয়নি, যেখানে আপনি আপনার প্রেমিকার ধৈর্যশীল রূপটা দেখতে পেতেন! হয়তো ভবিষ্যতেই পাবেন!

আবেগ
মেয়েদের আবেগ নিয়ে অনেক কথা লেখা হয়েছে। এই আবেগের কারণেই মেয়েদের অনেক কষ্ট পেতে হয় জীবনে। কিন্তু একইসঙ্গে আবেগ মেয়েদের একধরনের দৃঢ়তা দেয়। এবং তার জন্যই তাঁরা অনেক শক্তপোক্ত ও গভীর সম্পর্কের বাঁধন তৈরি করতে পারেন।

আরপি/ এএইচ

No Comments so far

Jump into a conversation

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

<