বিশ্বের সপ্তাশ্চর্য মাচু পিচ্চু

বিশ্বের সপ্তাশ্চর্য মাচু পিচ্চু May 22, 2017 0 comments

সরদার জাহিদুল কবীর: পৃথিবীর নতুন সাতটি আশ্চর্যের মধ্যে চতুর্থ স্থানে নির্বাচিত হয়েছে পেরুর ইনকা’র হারানো শহর হিসেবে পরিচিত মাচু পিচ্চু। ১৫ শতকে দক্ষিণ আমেরিকায় ইনকা সম্রাজ্য গড়ে ওঠে। সমুদ্র লেবেল থেকে প্রায় ৭,৯৭০ ফুট ওপরে গড়ে ওঠে এই সম্রাজ্যের সাংস্কৃতিক প্রাণকেন্দ্র মাচু পিচ্চু।2

এটি দক্ষিণ আমেরিকার দেশ পেরুর কাসকো অঞ্চলে আবিস্কৃত হয়। কাসকোর ৮০ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে উরুবাম্বা উপত্যকায় প্রায় ১৪৮০ ফুট উল্লম্ব একটি পর্বতের ওপর এটি অবস্থিত। এটির তিনদিক থেকে প্রবাহিত উরুবাম্বা নদি। অনেক স্থপতির মতে ইনকা সভ্যতার প্রতিষ্ঠাতা সম্রাট পাচাকুটি মাচু পিচ্চুকে ১৫ শতকের মাঝামাঝি সময়ে একটি নান্দনিক শহর হিসেবে গড়ে তোলেন।3

আমেরিকার ইতিহাসবিদ হাইরাম বিংহাম ১৯১১ সালে এই ধ্বংস হয়ে যাওয়া শহরটিকে আন্তর্জাতিক মহলের দৃষ্টিতে আনেন। তখন থেকেই মাচু পিচ্চু আকর্ষণীয় পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে উঠতে থাকে। পেরু সরকার ১৯৭৬ সাল থেকে এটির বেশিরভাগ বাড়ি বা স্থাপনাগুলোর মূল প্রাচীন কাঠামো ঠিক রেখে নতুন করে সংস্কার শুরু করে।4

১৯৮৩ সালে ইউনেস্কো এটাকে বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে ঘোষণা করে। ২০০৭ সাল থেকে আয়োজিত ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিশ্ব ভোটে পৃথিবীর নতুন সাতটি আশ্চর্যের মধ্যে চতুর্থ স্থান অধিকার করে এটি। মসৃণ ড্রাই-স্টোনে ক্লাসিক্যাল ইনকা প্যাটার্ণে তৈরি মাচু পিচ্চু’র দেয়াল ও বাড়িগুলি। বেশ সুনিবিড়ভাবে তৈরি করা শহরটি আবাসিক, শিল্প, প্রসাশনিক, উপশনালয় প্রভৃতি ভাগে বিভক্ত। মাচু পিচ্চুতে ঢোকার চারটি রাস্তা রয়েছে। যার মধ্য থেকে এখন মাত্র একটি ব্যবহার করছে প্রতিদিন প্রায় ১৫০০ পর্যটক।5

মাচু পিচ্চু বিশ্ব সপ্তাশ্চর্যের সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় পেরুর জনগণ মনে করেন, এই সম্মানটি শুধু আমেরিকা মহাদেশে গড়ে ওঠা বুদ্ধিদীপ্ত আদিবাসী সভ্যতার কাজ, সৃজনশীলতা, জ্ঞান এবং শ্রেষ্ঠত্বকে সম্মান দেখানোই নয় এটি আদিবাসী লোকদের অধিকার পুন:প্রতিষ্ঠারও ডাক। তাদের পূর্বপুরুষেরা এই সভ্যতার পত্তন করেছিল বলেই আজ তারা গৌরবান্বিত। এই সভ্যতা ধ্বংসপ্রাপ্ত হয় ইয়রোপীয়রা এ দেশ দখল করে তাদের অস্ত্র, ঘোড়া, ধর্ম এবং রোগ ছড়িয়ে দেওয়ার সাথে সাথে। তবে তারা বিশ্বাস করতে চান যে এই সবই অতীতের কথা। এখন মাচু পিচ্চু সত্যিই আশ্চর্য দৃষ্টিনন্দন এক ট্যুরিস্ট স্পট।

No Comments so far

Jump into a conversation

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

Your data will be safe!Your e-mail address will not be published. Also other data will not be shared with third person.