প্রধানমন্ত্রী আজ সৌদি আরব যাচ্ছেন

প্রধানমন্ত্রী আজ সৌদি আরব যাচ্ছেন May 20, 2017 0 comments

রঙিন ডেস্ক : সৌদি বাদশার আমন্ত্রণে আরব-ইসলামিক-আমেরিকান সম্মেলনে অংশ নিতে আজ শনিবার সন্ধ্যায় সৌদি আরব যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। চার দিনের এই সফরে তিনি সম্মেলনে অংশ নেওয়া ছাড়াও মক্কায় ওমরা পালন ও মদিনায় হজরত মুহাম্মদ সা:-এর রওজা জিয়ারত করবেন।

সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী মুসলিম দেশগুলো মূলত সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের সদস্য। তবে এতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডেনাল্ড ট্রাম্পও অংশ নেবেন। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের এটিই প্রথম বিদেশ সফর।

ইরানের প্রভাব বলয়ের বিপক্ষে একটি সম্মিলিত অবস্থান গড়ে তোলার লক্ষ্যে সৌদি আরব এ জোট গঠনের উদ্যোগ নিয়েছিল। ইয়েমেনে ইরান সমর্থিত হুদি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান পরিচালনায় জোটের ভূমিকা প্রত্যাশা করেছিল সৌদি আরব। তবে শেষ পর্যন্ত গালফ কো-অপারেশন কাউন্সিলভুক্ত (জিসিসি) দেশগুলোর বাইরে ইয়েমেনে কেউ সামরিক অভিযানে অংশ নেয়নি।

প্রধানমন্ত্রীর আসন্ন সফরের ওপর গতকাল আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, বাংলাদেশ তথ্য ও গবেষণা দিয়ে সৌদি জোটকে সহায়তা দিতে আগ্রহী। এর বাইরে কেবল মক্কা ও মদিনা যদি হুমকিতে পড়ে বা আক্রান্ত হয়, তবে সৌদি আরবের অনুরোধে বাংলাদেশ সৈন্য পাঠাতে পারে। কেননা মক্কার মসজিদুল হারাম ও মদিনায় অবস্থিত মসজিদে নববীর প্রতি বাংলাদেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের ভক্তি এবং ভালোবাসা রয়েছে।

২১ মে অনুষ্ঠেয় সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী জিসিসিসহ আবর বিশ্ব ও অন্যান্য মুসলিম দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের সাথে অংশ নেবেন। সম্মেলনের অন্যতম লক্ষ্য হলো উগ্রবাদ ও সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় নতুন অংশীদারিত্ব প্রতিষ্ঠা, সহনশীলতা ও সহাবস্থান মূল্যবোধের প্রসার ঘটানো এবং নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা জোরদার করা।

সম্মেলনে আগামী দিনগুলোতে সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলা এবং ফিলিস্তিন সংকটসহ ভূ-রাজনৈতিক বিষয়ে আলোচনা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মেলনে সন্ত্রাসবাদ ও উগ্র জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের সুদৃঢ় অবস্থান এবং সন্ত্রাস দমনে সাম্প্রতিক সাফল্য তুলে ধরে বক্তব্য রাখবেন। একই সাথে তিনি সন্ত্রাস দমনে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে যৌথভাবে করণীয় বিভিন্ন প্রস্তাবনা উত্থাপন করবেন।

প্রধানমন্ত্রীর আসন্ন সৌদি আবর সফর দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরো জোরদারের পাশাপাশি সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী অন্যান্য দেশের সাথে সম্পর্ক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এএইচ

No Comments so far

Jump into a conversation

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

Your data will be safe!Your e-mail address will not be published. Also other data will not be shared with third person.