পাসপোর্ট সূচকে দুইধাপ অবনমন বাংলাদেশের

পাসপোর্ট সূচকে দুইধাপ অবনমন বাংলাদেশের জুলাই ১৩, ২০২০ ০ comments

রঙিন ডেস্ক : হেনলি প্রকাশিত পাসপোর্ট সূচকে দুইধাপ অবনমন হয়েছে বাংলাদেশের। গত বছর এই সূচকে বাংলাদেশ ছিল ৯৯তম অবস্থানে। এ বছর ১০১তম। ২০০৬ সালে পাসপোর্ট সূচকে বাংলাদেশ ছিল ৬৮তম। এরপর থেকে কেবল দুর্বলই হচ্ছে বাংলাদেশের পাসপোর্ট।

এক দশক আগে বাংলাদেশের পাসপোর্টধারীরা বিশ্বের ২২৭টি গন্তব্যের মধ্যে ৩৯টিতে ভিসা ছাড়া কিংবা আগেই ভিসা নেওয়া ছাড়া ভ্রমণ করতে পারতো। অবশ্য এখন করতে পারে ৪১টি গন্তব্যে। ২০০৯ সালের পর মাত্র দুটি দেশ যুক্ত হয়েছে ভ্রমণের তালিকায়।

বাংলাদেশের প্রতিবেশী দেশ ভারত এবারের সূচকে রয়েছে ৮৫তম অবস্থানে। অবশ্য ভারতের তিনধাপ অবনতি হয়েছে। গেল বছর তারা ছিল ৮২তম অবস্থানে। ভারতের পাসপোর্টধারীরা ৫৮টি দেশে ভিসা ছাড়া কিংবা অন-অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা নিয়ে ভ্রমণ করতে পারে।

পাসপোর্ট সূচকে ভুটানের অবস্থান ৯০তম। গত বছর তাদের অবস্থান ছিল ৮৯তম। ভুটানের পাসপোর্টধারীরা ভিসা ছাড়া কিংবা অন অ্যারাইভাল ভিসা নিয়ে ৫৩টি দেশে ভ্রমণ করতে পারে।

শ্রীলঙ্কা রয়েছে ১০০তম অবস্থানে। গেল বছর তারা ছিল ৯৬তম অবস্থানে। শ্রীলঙ্কার পাসপোর্টধারীরা ৪২টি দেশে ভিসা ছাড়া কিংবা আগে ভিসা না নিয়ে ভ্রমণ করতে পারে।

দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে নেপাল, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান রয়েছে বাংলাদেশের চেয়ে খারাপ অবস্থানে।

আরো পড়ুন: করোনার তথ্য গোপন করেছে চীন এবং ডব্লিউএইচও

বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্টের তালিকায় শীর্ষে রয়েছে জাপান। দেশটির পাসপোর্টধারীরা বিশ্বের ১৯১টি দেশে ভিসা ছাড়া অথবা অন-অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা পায়। শক্তিশালী পাসপোর্টের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে সিঙ্গাপুর। সিঙ্গাপুরের পাসপোর্টধারীরা ১৯০টি গন্তব্যে ভিসা মুক্ত বা অন-অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা পায়। এই তালিকায় দক্ষিণ কোরিয়া ও জার্মানি যৌথভাবে তৃতীয় স্থানে আছে। দেশ দুটির পাসপোর্টধারীরা ১৮৯টি গন্তব্যে ভিসা মুক্ত বা অন-অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা পায়।

আরপি/ এএইচ

No Comments so far

Jump into a conversation

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

<