চাকরি হারানোর ভয়ে আছেন? তাহলে এই টিপসগুলো আপনার জন্য

চাকরি হারানোর ভয়ে আছেন? তাহলে এই টিপসগুলো আপনার জন্য সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০ ০ comments

Wallpaper woman, fatigue, office worker images for desktop, section ситуации - download

রঙিন ডেস্ক : করোনা ভাইরাসের জেরে সারা দেশে লকডাউনের ব্যবস্থা নিয়েছে সরকার। আর এই মারণ ভাইরাসের জেরে বড় ধাক্কা পড়েছে অর্থনীতির উপর। আর তারই প্রভাব পড়েছে কর্মসংস্থানে। যার ফলেই কর্মহীন হয়ে পড়তে পারে কোটি কোটি মানুষ তেমনটাই আশঙ্কা করা হচ্ছে। মহামারির আবহে বিভিন্ন সংস্থা কর্মী ছাঁটাইয়ের পথ বেছে নিয়েছে। চাকরি চলে যাওয়া মানেই আগামী দিনে কী হতে পারে, তা ভেবেই অনেকে শিউরে উঠছেন। কিন্তু অনেকেই হয়তো এমন পরিস্থিতির শিকার। আবার অনেকেই হয়তো কাজ হারানোর চিন্তায় দিন গুনছেন। এই না আজই শেষ দিন। এমন পরিস্থিতিতে পরলে কীভাবে তার মোকাবিলা করবেন, জেনে নিন আগাম প্রস্তুতি কিছু ট্রিকস।

একটানা দীর্ঘ ছয় মাসের লকডাউনে একাধিক কর্মক্ষেত্রেই ঝাঁপ পড়েছে। মহামারির আবহে বিভিন্ন সংস্থা কর্মী ছাঁটাইয়ের পথ বেছে নিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে সম্ভাব্য ছাঁটাইয়ের জন্য প্রস্তুতি আগে থেকে নিয়ে রাখাই হল সবথেকে বুদ্ধিমানের কাজ।

আজই হয়তো কাজের শেষ দিন। এই চিন্তাটাই যেন সবচেয়ে গভীর প্রভাব ফেলেছে। কারণ এহেন পরিস্থতিতে যে কোনও সময়ে আগাম নোটিশ ছাড়াই কর্মী ছাঁটাই হয়ে যাচ্ছে।

এই পরিস্থিতির শিকার বিশ্বে বহু মানুষই হয়েছেন। এই সময় কাটিয়ে উঠতে কীভাবে তার মোকাবিলা করবেন, তা আগে থেকেই প্ল্যান করে রাখুন।

অযথা আতঙ্কিত হলেই বাড়বে বিপদ। তবে পরিবারের আয়ের উৎস যদি আপনি একা নন, তা হলে অবশ্যই তা চিন্তার উদ্বেগ। কিন্তু এহেন পরিস্থিতিতে হতাশ না হয়ে অযথা চিন্তিত না হয়ে পরিস্থিতির সাথে বুঝে চলুন।

কাজ চলে যাওয়া মানেই নিজের পুরো কেরিয়ারটা শেষ, তেমনটা কিন্তু নয়। মন স্থির রেখে ইতিবাচক চিন্তাভাবনা নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে।

যদি নোটিশ পিরিয়ড হাতে পাওয়া যায়, তা হলে সেই সুযোগটায় অযথা বসে না থেকে পুরো কাজে লাগাতে হবে। নতুন কাজের সন্ধান করতে হবে। যে কোনও কাজ পেলেই যোগ দিতে হবে।

নিয়োগকারী সংস্থার বর্তমান পরিস্থিতির উপর নজর রাখতে হবে। এবং সেখান থেকেই নিজেকে সতর্ক হতে হবে। চাকরি হারানোর পর যত দ্রুত সম্ভব অন্য কাজ জোগাড় করে নিতে হবে। এই বিশেষ সতর্কতাগুলি নজরে রাখলে শেষ মুহূর্তের আতঙ্ক এড়ানো যাবে।

আরো পড়ুন: কিডনির যত্ন নিন এখন থেকেই

নিজের বায়োডেটা সবসময়ই আপডেট রাখতে হবে। নিজের বায়োডেটা আপডেটের জন্য কিছু ট্রেন্ডিং অনলাইন কোর্স করে ফেলতে পারেন। যে কোনো অপ্রত্যাশিত পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত রাখতে হবে সবসময় নিজেকে।

বর্তমানে অনলাইনে কর্মসংস্থানের একাধিক প্ল্য়াটফর্ম রয়েছে। সেখানে নিজের নাম ও বায়োডেটা নথিভুক্ত করতে হবে। এ ছাড়া অন্যান্য সংস্থায় নিয়োগ হচ্ছে কি না, তার আপডেটও রাখতে হবে।

আরপি/ এএইচ

No Comments so far

Jump into a conversation

No Comments Yet!

You can be the one to start a conversation.

<